রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
বারহালে আওয়ামীলীগ এর মতবিনিময় সভায় আলহাজ্ব মাসুক উদ্দিন আহমদ  » «   বারহা‌লে দি স্টু‌ডেন্ট ডে‌ভেলাপ‌মেন্ট ক্লাব(চক বুরহানপুর)এর ক‌মি‌টি গঠন   » «   জেলা পর্যায়ে মেধা বৃত্তি পেলেন জকিগঞ্জের ইছামতি কামিল মাদ্রাসার নয় মেধাবী শিক্ষার্থী  » «   জকিগঞ্জ উপজেলা উন্নয়ন পরিষদ ফ্রান্সের পক্ষ থেকে আলী রেজার পরিবারকে নগদ অর্থ প্রদান  » «   ওসিসি থেকে পালিয়ে যাওয়া সেই ভয়ংকর নারী প্রতারক পপি আটক  » «   মৌলভী ছাইর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস পালন   » «   শাহগলী আদর্শ শিশু বিদ্যানিকেতনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী পালন  » «   বারহালে মাদক,সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আলোচনা সভা সম্পন্ন  » «   আটগ্রামে স্কুল ছাত্র সাজুর ইন্তেকাল  » «   আটগ্রামে সরকারি গোপাট উন্মুক্ত করতে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ  » «  

সীমান্ত পেরিয়ে প্রেম, বিয়ে, অতঃপর…

বাংলাদেশের ছেলে অবৈধভাবে সীমান্ত পেরিয়ে গিয়েছিলেন ভারতে। সেখানকার এক মেয়ের সঙ্গে হয় তাঁর মন দেওয়া-নেওয়া। এরপর দুজনে বিয়ে করে ফেলেন। মেয়েটি বরের সঙ্গে চলে আসেন এ দেশে। কিন্তু শান্তিতে সংসার করা আর হলো না। তাঁদের ভালোবাসায় বাদ সেধেছে পুলিশ। যশোরের কেশবপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের বিষ্ণু মণ্ডল (৩০) ২০০০ সালের দিকে অবৈধভাবে ভারতে যান। উত্তর ২৪ পরগনার শবনম পারভিনের (২২) সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। এক বছর প্রেমের পর তাঁরা বিয়ে করে বাংলাদেশে চলে আসেন। গত তিন মাস ধরে তাঁরা এখানে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করছিলেন। এখানে শবনমের নাম হয় বান্টি মণ্ডল।

কিন্তু শবনম যে অবৈধভাবে বাংলাদেশে চলে এসেছেন, তা তাঁর পরিবার জানতে পারে। আবদুস সালাম নামে ঢাকায় তাঁদের এক আত্মীয় থাকেন। তিনি কেশবপুর থানায় এ ঘটনা জানালে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গতকাল বুধবার বিকেলে মেয়েটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

শবনম পারভিন ওরফে বান্টি থানায় উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে বলেন, কোনো আইন তাঁদের ভালোবাসায় বাধা হতে পারবে না। তিনি বলেন, ‘আমি বিষ্ণুকে ভালোবাসি। তাঁকে ছাড়া আমি বাঁচব না। আমাকে ভারতে পাঠিয়ে দিলেও আমি আবার বাংলাদেশে চলে আসব।’

অন্যদিকে বিষ্ণুরও একই কথা। একসঙ্গে থাকার স্বপ্ন দেখছেন তিনি। বিষ্ণুর বাবা মধুসূদন মণ্ডল বলেন, ‘আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আমরা বউমাকে বের করে ঘরে তুলব।’

শবনম পারভিন ওরফে বান্টি জানিয়েছেন, শ্রীচৈতন্য কলেজের বিএ তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী তিনি। সেখানে তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। আর বিষ্ণু মণ্ডল ইলেকট্রিকের দোকানে কাজ করতেন।

কেশবপুর থানার ওসি এস এম আনোয়ার হোসেন বলেন, মেয়েটি ভারতীয় নাগরিক হিসেবে অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঢুকেছেন। এ কারণে ১৯৫২ সালের বর্ডার ক্রস আইন অনুযায়ী মামলা হয়েছে। তাঁকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। (প্রথম আলো)

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

Developed by:

.