শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
বারঠাকুরী ইউপি সদস্য সুনাম আহমদের দাফন; এলাকায় শােকের ছায়া  » «   ফেসবুক জুড়ে ইকবাল তালুকদারের মৃত্যুর স্ট্যাটাস  » «   ইকবাল তালুকদারের ইন্তেকাল; জকিগঞ্জে শােকের ছায়া  » «   ঢাকায় মি’রাজুন্নবী সা. উপলক্ষ্যে আলোচনা ও মিলাদ মাহফিল  » «   আমেরিকা প্রবাসীদের উদ্যোগে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের সম্মাননা প্রদানের সিদ্ধান্ত  » «   বারহাল কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ আপাতত প্রত্যাহার  » «   জকিগঞ্জ থেকে চুরি হওয়া মোটরসাইকেল সিলেটে উদ্ধার  » «   কালিগঞ্জ বাজার থেকে ব্যাটারিসহ ৩চোর আটক  » «   উৎসব মুখর পরিবেশে আটগ্রাম বাজার কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন  » «   সৌভাগ্যের মূলে রয়েছে পরিশ্রম  » «  

সিলেট জেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির সংবাদ সম্মেলন থেকে ‘আমরণ অনশন’ এর ডাক।

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার। একটি জাতির উন্নতির প্রধান শর্ত শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতি। আমাদের দেশের প্রাথমিক শিক্ষার সিংহভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করে থাকে। সরকার নানাভাবে শিক্ষার ভিত খ্যাত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নতির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। তদুপরি আমাদের প্রাথমিক শিক্ষা পদ্ধতি পদ্ধতিগত ভুলের কারণে অনেক পিছিয়ে আছে পার্শ্ববর্তী দেশসমুহ থেকে।  আমাদের অবস্থানের প্রেক্ষাপটেও আমাদের এগিয়ে থাকার কথা! কিন্তু শিক্ষক স্বল্পতা, বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত পাঠদান সময়সূচী সহ নানা সমস্যায় জর্জরিত থাকায় আমরা এগিয়ে যেতে পারছি না।

এইসব সমস্যার জর্জরিত শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষা প্রদানের পরিবেশে সবচেয়ে অন্তরায়  হিসাবে কাজ করছে বেতন বৈষম্য। বাংলাদেশের সুচনালগ্নে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষদের গ্রেড সমান ছিল। পরবর্তীতে একধাপের পার্থক্য ছিল যা অত্যন্ত যৌক্তিক। কিন্তু নতুন জাতীয় পে স্কেলের পর সে পার্থক্য তিন ধাপে গড়িয়েছে। সমান যোগ্যতার প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের মধ্যকার এই বৈষম্য অত্যন্ত অমানবিক ও অযৌক্তিক।  দীর্ঘদিন থেকে সহকারী শিক্ষকগণ যথানিয়মে প্রতিবাদ করে আসলেও তা কাজে আসছে না। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ১৫ ডিসেম্বর সারাদেশব্যপী সংবাদ সম্মেলন অনুষ্টিত হয়।

কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সিলেটে জেলার এই সংবাদ সম্মেলন মুসলিম সাহিত্য সংসদ মিলনায়তনে অনুষ্টিত হয়। এতে সিলেট জেলার প্রত্যেক উপজেলার নেতৃবৃন্দ ও শিক্ষক-শিক্ষিগণ অংশগ্রহণ করেন। উপস্থিত টিভি মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়ার সামনে সম্মেলনের সভাপতি প্রায় ১০ মিনিটের বক্তব্যে লিখিত কর্মসূচি পাঠ করেন।

 মারুফ আহমদ সুমন

লিখিত বক্তব্যের প্রথম পৃষ্টা।

এতে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের এ বেতব বৈষম্য চরম অমানবিক ও অযৌক্তিক হিসাবে ধারাবাহিক প্রমান সহ উপস্থাপন করা হয়।

লিখিত বক্তব্যের দ্বিতীয় পৃষ্টা

ইতিপূর্বে প্রধানমন্ত্রী বরাবর চিঠি প্রদান,অর্থমন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রীর সাথে সমিতি নেতৃবৃন্দের সাক্ষাৎ সহ অন্যান্য কর্মসূচীর বর্ণনাও দেয়া হয়। আগামী ২২ ডিসেম্বর এর মধ্যে এর সমাধান না হলে ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখ থেকে দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত ঢাকা জাতীয় শহীদ মিনারের সামনে আমরণ অনশনের মত কঠোর কর্মসূচীর কথা ঘোষণা করা হয়।

Maruf Ahmed Sumon

জকিগঞ্জ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির পক্ষে এতে উপস্থিত ছিলেন আহ্বায়ক কয়ছর আহমদ, সেক্রেটারি মোঃ আব্দুল হালিম, সহকারী শিক্ষকদের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন মইজ উদ্দিন চৌধুরী, আজাদ উদ্দিন, বদরুল ইসলাম, ইমদাদুর রহমান ও মারুফ আহমদ সুমন।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.