বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জে ৪০৫০পরিবার মাসে ৩০কেজি চাল-নগদ ৫০০টাকা পাবেন  » «   জেলা ছাত্রদল সদস্য শাহানের সৌদি যাত্রা উপলক্ষ্যে বিদায় সংবর্ধনা  » «   জকিগঞ্জ আদালতের সহায়তায় ২২বছর পর পরিবারের কাছে ফিরলেন দুই বৃদ্ধ  » «   ফয়ছলের পিতার ইন্তেকালে জকিগঞ্জ বার্তা সম্পাদক এনামুল হক মুন্নার শোক  » «   প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ  » «   বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন জকিগঞ্জ আঞ্চলিক কমিটির কার্যক্রম স্থগিত  » «   সেতুবন্ধনের উদ্যোগে ব্ল্যাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ইউএনও শহীদুলকে প্রায় ৩লক্ষ টাকা প্রদান  » «   কেছরী গ্রামে যুবলীগের উপজেলা ও পৌর আহ্বায়ক কমিটির তিনজনকে সংবর্ধণা  » «   কেছরী গ্রামে যুবলীগের উপজেলা ও পৌর আহ্বায়ক কমিটির তিনজনকেকে সংবর্ধণা  » «   ব্ল্যাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ইউএনও শহীদুল হক জকিগঞ্জ বাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন  » «  

সব বাধা পেরিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে নারী

বাংলাদেশরের ভেতর-বাইরে নানা বাধা সত্ত্বেও থেমে নেই নারীর অগ্রযাত্রা। শ্রমিক শ্রেণি থেকে শুরু করে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে সুদৃঢ় অবস্থান নারীর। শিক্ষা, সরকারি-বেসরকারি চাকরি, ব্যবসা-বাণিজ্য, চিকিৎসা, খেলাধুলা ও সাংবাদিকতাসহ এ মুহূর্তে সবখানেই নারীর বিচরণ। আর জাতীয় রাজনীতিতে চালকের ভূমিকায় আছেন তারা। এ মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা, মাঠের রাজনীতির বড় দলের প্রধান এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রিত্ব করছেন নারী। অতীতে স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীও ছিলেন তারা। আর এসব কারণেই মহিলা রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বের প্রথম দশটি দেশের একটি। বিভিন্ন সূচক বলছে, নারীর অগ্রযাত্রায় এখন অনেক উন্নত দেশকেও পেছনে ফেলছে বাংলাদেশ।

নারীবিষয়ক গবেষকরা বলছেন, অব্যাহত প্রচারণার ফলে নারী বিশেষ করে কন্যাশিশুর প্রতি মানুষের সচেতনতা বাড়ছে। একসময়ে ছেলেশিশুর জন্য বাবা-মায়ের প্রত্যাশা থাকত বেশি। এই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হয়নি। তবে কমছে। অনেকেই কন্যাশিশুতেই সন্তুষ্ট থাকছেন। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে বর্তমানে ছাত্রের তুলনায় ছাত্রী বেশি। যদিও উচ্চমাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষায় এ হার কম। কিন্তু এ সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। একই অবস্থা সরকারি চাকরিতে। মোট হিসাবে সরকারি চাকরিতে নারীর সংখ্যা এক-চতুর্থাংশের মতো। গত ছয়টি বিসিএস (বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস) এ গড়ে ৪১ শতাংশের বেশি নারী চাকরি পেয়েছেন। তবে এরপরও এখন পর্যন্ত সার্বিকভাবে সমাজে নানা প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হচ্ছে নারীকে। এর মধ্যে বাল্যবিবাহ ও সামাজিক নিরাপত্তার অভাব অন্যতম। ১৮ বছরের নিচের কন্যাশিশুকে বিয়ে দেয়ার বিশেষ বিধান প্রণয়ন করায় বাল্যবিবাহ আরও বাড়িয়ে দেবে বলে আশংকা বিশেষজ্ঞদের। তাদের মতে, পিছিয়ে পড়ার কারণগুলো দূর করতে না পারলে নারীর অগ্রগতি এখানেই থেমে থাকবে।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বের অন্য দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে বুধবার পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস। এবারের প্রতিপাদ্য- ‘নারী-পুরুষ সমতায় উন্নয়নের যাত্রা, বদলে যাবে বিশ্বকর্মে নতুন মাত্রা’।

১৯০৯ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ দিবসটি উদযাপন শুরু করে। পরবর্তী দু’বছরের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রিয়া, ডেনমার্ক, জার্মানি ও সুইজারল্যান্ড, সোভিয়েত ইউনিয়ন ও চীনসহ পূর্ব ইউরোপের সমাজতান্ত্রিক দেশগুলোতে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে উদযাপিত হয়। জাতিসংঘ দিবসটি উদযাপন শুরু করে ১৯৭৪ সাল থেকে। পরের বছর ৮ মার্চ থেকে দিবসটি বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। এ ছাড়া সারা দেশে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচি। দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্বালন করা হয়। সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নারী দিবসের উদ্বোধন করা হবে। সেখানে জাতীয় পর্যায়ে বিজয়ী শ্রেষ্ঠ ৫ জয়িতাকে পুরস্কার দেয়া হবে। আর বিকালে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে নারীর ক্ষমতায়ন ও বাংলাদেশ শীর্ষক সেমিনার আয়োজন করা হয়েছে।

নারী নেতৃত্বে বিশেষ ফ্লাইট : আন্তর্জাতিক নারী দিবসে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা-সিলেট রুটে একটি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে। যার পরিচালনায় থাকবেন বিমানের নারী পাইলট ও নারী ক্রুরা। বিশেষ এ ফ্লাইটে থাকবেন ক্যাপ্টেন তানিয়া রেজা এবং ফার্স্ট অফিসার সারওয়াত সিরাজ অন্তরা। তারা দু’জন বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজে দুপুর ১টা ১৫ বিজি-৬০৩ ফ্লাইটে ৬ জন নারী ক্রু ও যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে সিলেটের উদ্দেশে রওনা হবেন। (নতুন সময়)

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.