শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

শাসকের সঙ্গে আলেমের সম্পর্ক হওয়া উচিত শ্রদ্ধানির্ভর

234859Sk-Hasina-Shafi-kawmi-kalerkantho

প্রধানমন্ত্রী আজ কওমি মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান দিয়েছেন। এটা কেবল সূচনা। এখনও এর গেজেট ও আইন প্রণয়ন এবং অনুমোদন বাকি। এই স্বীকৃতি কওমি শিক্ষার্থীদের অধিকার। দেশের নাগরিক এবং দেশে শিক্ষা লাভ করার পরও কওমি ছাড়া অন্য কোনও অঙ্গনে সনদপত্রের কোনো শিক্ষামূল্য থাকবে না, এটা যেমন ছিল অস্বাভাবিক, তেমনিভাবে অন্যায্যও।

স্বীকৃতির পরবর্তী প্রক্রিয়াগুলো দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়িত করতে পারলে কওমি ইতিহাসে এই সরকার যেমন নন্দিত হবে, তেমনিভাবে লাখো শিক্ষার্থী তাদের বহুমুখী কর্মজীবনের কথা মাথায় রেখে আরও যোগ্য হওয়ার অনুপ্রেরণা পাবে।

অপ্রিয় হলেও সত্য যে, বন্ধুবেশে বেশকিছু ইসলাম নামধারী গোষ্ঠী সরকারবিরোধী ইস্যুতে কওমি শিক্ষার্থীদের উস্কে দিতে সব ধরণের কৌশল প্রয়োগ করে। এরপর এ থেকে লাভগুলো তাদের খাতায় যোগ হয়, ক্ষতির দায় কওমি ছাত্রদের কাঁধে চাপানো হয়।

এ স্বীকৃতি প্রাপ্তির পর উল্লেখিত শ্রেণির গুটিবাজরা হতাশ হবেন এবং এ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াতে নতুন নতুন বিতর্ক ছড়াবেন। কিন্তু কওমি শিক্ষার্থীরা নিশ্চয়ই মনে রাখবেন, এ স্বীকৃতি তাদের প্রাপ্য অধিকার এবং এটির সুফল ভোগ করার সব পথ ও পদ্ধতি তৈরি এবং বাস্তবায়নের দায়িত্বও তাদের। এটি নিয়ে সুযোগসন্ধানী যারা পানি ঘোলা করবে, তারা অবশ্যই কওমি শিক্ষার্থীদের বহুমুখী কর্মময় ভবিষ্যতের ‘আশঙ্কায়’ হিংসাবশত শঙ্কাগ্রস্ত।

কওমি মাদরাসারও কেউ কেউ এ স্বীকৃতি নিয়ে অনুচিত মন্তব্য করছেন, যা শীর্ষ আলেমদের প্রতি তাদের অশোভন আচরণের বহিঃপ্রকাশই শুধু নয়, বরং অপরিপক্ক বোধ ও অদূরদর্শী চিন্তার প্রমাণও।

শাসকের সঙ্গে আলেমের সম্পর্ক হওয়া উচিত শ্রদ্ধানির্ভর। স্বীকৃতি ঘোষণার অনুষ্ঠানে সরকারপ্রধান আলেমদের সম্মানে শ্রদ্ধাবনত যে আচরণ করেছেন, তা যেমন প্রশংসনীয়, তেমনিভাবে আলেমরাও বিগলিত না হয়ে বরং নিজেদের দাবি-দাওয়াগুলো তুলে ধরেছেন নিঃসঙ্কোচে, সেটিও ভালো লেগেছে। যে প্রাপ্তির সূচনা হলো এখান থেকে, তা বাস্তবায়িত হোক, এ প্রত্যাশা নিরপেক্ষ সবার।
লেখক: গণমাধ্যম গবেষক, মানবাধিকার বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, কাতার

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.