মঙ্গলবার, ২৩ মে, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
সেই হামলায় জড়িত ফুলতলী এতিমখানার ৩শিক্ষক ও ১৭ছাত্রকে বহিষ্কার  » «   জকিগঞ্জের সেই মানসিক ভারসাম্যহীন পরিবারকে সহায়তা  » «   জকিগঞ্জে প্রায় ৭০লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত দু’টি ব্রীজের উদ্বোধন  » «   জকিগঞ্জ পাবলিক লাইব্রেরীর গেইট ও দেয়াল উদ্বোধন  » «   গণিপুর কামালগঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা  » «   দীর্ঘদিন পর জকিগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল  » «   বার্জার ডিজিজে আক্রান্ত জকিগঞ্জের মুহিম একটু সহানুভূতি পাবে কী ?  » «   ভারত যাত্রার প্রাক্ষালে যা বললেন জকিগঞ্জের ইউএনও শহীদুল  » «   অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট আজ থেকে শুরু  » «   ফের পানিতে দীর্ঘক্ষণ ঘুমালো জকিগঞ্জের তজমুল  » «  

মানুষের চোখ ৫৭৬ মেগাপিক্সেল!

390304_120587

সৃষ্টি বড়ই অদ্ভূত। পৃথিবী জুড়ে এমন অনেক কিছুই রয়েছে, যেগুলি সম্পর্কে ন্যূনতম কোনো ধারণাই আমাদের নেই। বেশি দূরে যেতে হবে না। ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়াই যে কত সৃষ্টি, কত ঘটনা এদিক-ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে, তা-ই অনেক সময় আমাদের গোচরে আসে না। আজ পাঠকদের জানাব মানবদেহ সম্পর্কেই অবাক করা ৫টি তথ্য। জানেন কি, আপনি একজন সুপারহিরো। প্রত্যেকটা মানুষই ১০টা সুপার পাওয়ার নিয়ে জন্মায়। নিজেদের সেই ক্ষমতা সম্পর্কে আমরা নিজেরাই অনেকে অবগত নই। তাহলে জানা না থাকলে জেনে নিন।

১. মানুষের মস্তিষ্ক বিদ্যুৎ উৎপাদক: নিউরন আমাদের মস্তিষ্কে বার্তা পাঠায়। সেই সময়ই বেশ কিছুটা বিদ্যুৎ উৎপন্ন করে সেটি। মস্তিষ্কে তৈরি হয় প্রায় ২০ ওয়াট বিদ্যুৎ। এই পরিমাণ বিদ্যুৎ দিয়ে জ্বালানো যেতে পারে ছোট টিউব বা ডিম লাইট।

২. ইস্পাতের থেকে শক্ত মানবদেহের হাড়: জানেন কি, মানুষের শরীরের হাড় অনেক শক্ত জিনিসের থেকেও বেশি শক্তিশালী। নিশ্চয়ই ভাবছেন ঠিক কতটা শক্ত আমাদের হাড়? ইস্পাতের থেকে ৫ গুণ বেশি শক্ত।

৩. মানুষের চোখ আসলে ৫৭৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা: দিনরাত তো কোন ফোনের ক্যামেরা কত মেগাপিক্সেল, তা নিয়েই মেতে রয়েছেন। ৮ থেকে ৪১ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ফোন বাজারে এসেছে। আর যদি ডিএসএলআর ক্যামেরার কথা বলেন, তবে তার ক্ষমতা ১২০ মেগাপিক্সেল। কিন্তু, একবারও ভেবে দেখেছেন যে,  আপনার কাছেই রয়েছে বিশ্বের সর্বশক্তিমান ক্যামেরা! মানুষের চোখই আসলে ৫৭৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেজন্যই আমরা প্রায় ১ কোটি রঙ আলাদা ভাবে দেখতে পাই।

৪. মুখের ভাব পরিবর্তন করেই মুড পাল্টানো: বিজ্ঞান আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে, নির্দিষ্ট কোনো মানসিক অবস্থার আবেগ ও ভাবনাচিন্তার থেকে অনেক বেশি শক্তি রাখে মুখের অভিব্যক্তি। সঙ্গে সঙ্গে না হলেও, এটা কাজ করে ধীরে ধীরে।

৫. হঠাৎ কিছু করতে অ্যাড্রিনালিনের ছুটোছুটি: কোনো অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টস বা অস্বাভাবিক কোনো কাজের ক্ষেত্রে শরীরে বয়ে যায় অ্যাড্রিনালিন স্রোত। এটিই সেই কাজ করার জন্য শরীরকে বাড়তি শক্তি জোগায়। যেমন, ধরুন জাম্পিং, স্কাই ডাইভিং বা রেসিং-এর সময় শক্তির এই উৎসই সাফল্যের দোরগোড়ায় এনে দেয়। অনেকে অবশ্য স্বাভাবিক দক্ষতার থেকে বাড়তি কোনো সাফল্য পাওয়ার জন্য অনেক সময় শক্তিবর্ধক ইনজেকশন শরীরে প্রয়োগ করেন।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.