বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জ এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে অসহায় রোহিঙ্গাদেরকে সহায়তা প্রদান  » «   ঢাবি ভর্তি মেধা তালিকায় জকিগঞ্জের ফখরুল  » «   জকিগঞ্জের ইউএনও এবং এ্যাসিল্যান্ডকে সেতুবন্ধনের বিদায় সংবর্ধনা  » «   জকিগঞ্জের ইউএনও এবং এসিল্যান্ড বদলী  » «   শাহগলী আদর্শ শিশু বিদ্যানিকেতনের ২য় সাময়িক পরিক্ষার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন  » «   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরিক্ষার মেধাতালিকায় জকিগঞ্জের ফখরুল  » «   পিল্লাকান্দির আব্দুস ছালাম চৌধুরী অসুস্থ; দোয়া কামনা  » «   আল ইহসান একাডেমীতে শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি  » «   জকিগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে সততা স্টোরের উদ্বোধন  » «   লতিফিয়া সাংস্কৃতিক ফোরাম, কালিগঞ্জ’র সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত  » «  

বীরশ্রী ইউপি’র দক্ষিণ বিপক-বালিগ্রামের রাস্তার বেহাল দশা

19642362_1919123245008654_4259321316251008518_n

আব্দুল আউয়াল পলাশঃ প্রথমেই বলতে হয় আমরা কষ্ট দেখি না আমরা কষ্ট অনুভূব করি! বীরশ্রী ইউনিয়নের দক্ষিণ বিপক (পাকা রাস্তার শেষ প্রান্ত) থেকে বীরশ্রী ইউনিয়নের শেষপ্রান্ত বালিগ্রাম পর্যন্ত রাস্তার এই বেহাল_দশা। দেখার কেউ নেই সেকথা বলবো না! দেখার জন্য অনেক আছেন কিন্তু দেখেও না দেখার ভান করা স্বাভাবিক। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার অবস্তা এমন হয় যেন, গাড়ি, সাইকেল, মোটরসাইকেল চলাচল করা তো দূরের কথা এই পথ দিয়ে হেটে যাওয়াই কতটুকু কষ্টের তা কেবল ভুক্তভোগিরাই বলতে পারেন। যে রাস্তা দিয়ে দৈনিক হাজার মানুষের চলাচল সেই রাস্তা দিয়ে, বিশেষ করে স্কুলগামী ছোট-ছোট ভাই বোনেরা কিভাবে আসা-যাওয়া করবে, সুস্থ-স্বাভাবিক জনগণের কষ্টের কথা না হয় দূরেই থাক! কিন্তু এদের কষ্ট লাঘব হবে কিভাবে…. ১) স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রীদের কি পরিমাণ কষ্ট হয় কেবল তারাই বলতে পারবে. ২) হঠাৎ করে যদি কোন মানুষ অসুস্থতা বোধ করে তখন কিভাবে কি করা যাবে কারণ অত্র এলাকার মানুষের জন্য তো কোন ইমারজেন্সি-বিমান এর ব্যবস্থা নেই।৩) রাস্তার এই বেহাল দশা দেখে যখন গর্ভবতী মহিলাদের কথা মনে হয় তখন আমার মাথা ঘুরে, ইয়া আল্লাহ জরুরী মুহূর্তে ওরা কিভাবে হসপিটালের বারান্দায় পৌছাবে??? কোন রিক্সাচালক ভাই রিক্সা নিয়ে ঐ কাদা-ময় মাঠির রাস্তায় নামতেই চান না। আর নামবেইবা কিভাবে যেখানে পায়ে হেটে যাওয়াটা অনেক কষ্টের। কিন্তু একটি খুশির খবর হলো, আমাদের ইউ,পি চেয়ারম্যান, মেম্বার কিংবা স্থানীয় এম.পি মহোদয় গণের বাড়ি আমাদের ঐ (কাদা-ময় রাস্তার) দিকে নয়, তাই আমরা যে কষ্ট উপভোগ করি তা উনাদের উপভোগ করা তো দূরের কথা তা দেখতেও হয় না আর আমরাও চাই না উনারা কষ্ট উপভোগ করেন!! তবে হে, উক্ত এলাকার মানুষের মনের কথা গুলো মাঝে-মাঝে প্রকাশ পায় তারা খুব সুন্দর করে বলে… হায়রে হায় নির্বাচনগুলো কেনে অউ বর্ষাকালে হয় না!! নয়লেও একটু অইলেও তো উনারা ভোট চাওয়ার জন্য আমাদের আসতেন আর পরবর্তীতে দূর থেকে হয়তো আমাদের কষ্টগুলো অনুভূব করতেন। তাই আমি বলি, আমরা কষ্ট দেখিনা কষ্ট অনুভূব করি…… লেখাঃ আব্দুল আউয়াল পলাশ গ্রামের ছেলে, তাই ঐ কাদা-ময় রাস্তা দিয়েই আমার বাড়ি যেতে হয়।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.