শুক্রবার, ২২ জুন, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
২২টি গ্রামে বৃহত্তর ইছামতি কালিগঞ্জ প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা’র ঈদ সামগ্রী বিতরণ  » «   সোনাপুর-সুপ্রাকান্দি ডেভল্যাপমেন্ট সোসাইটির ঈদ সামগ্রী বিতরণ  » «   কাতারে জকিগঞ্জের আব্দুল মুহিম মিনুর মৃত্যু  » «   জকিগঞ্জে ১৩০বোতল অফিসার চয়েজসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   শাহ মোঃ ফয়ছল চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ সম্পন্ন  » «   বৃহত্তর আটগ্রাম প্রবাসী সমাজ কল্যাণ পরিষদের ঈদ সামগ্রী বিতরণ  » «   প্রতিবন্ধী ও দরিদ্রদের মধ্যে স্পেন প্রবাসী মাসহুদের ইফতার  » «   ইউএনও শহীদুল হকের ইন্তেকালে এইচটিএ সেবা ফাউন্ডেশনের শোক  » «   জকিগঞ্জে এমপি প্রার্থী এম জাকির হোসাইনের সমর্থনে ইফতার  » «   জকিগঞ্জের সাবেক ইউএনও শহীদুল হকের দাফন  » «  

বিয়ানীবাজারে হারিয়ে যাওয়া ছেলেকে ৭ বছর পর ফিরে পেলেন মা

 13664309_1028240360586775_2074564720_n

শহিদুল ইসলাম সাজুঃ ৭ বছর আগে সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া কিশোরকে ফিরে পেয়েছে তাদের পরিবার। উদ্ধারকৃত যুবক রুহুল আমিন (১৯) বিয়ানীবাজার উপজেলার বাইরগ্রামের সফির উদ্দিনের কনিষ্ট পুত্র। ৭বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সে ৮ নম্বর। পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, গত সোমবার বিকালে উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের টেকইকোনা গ্রামে অপ্রাকৃতিগ্রস্থ একঅটি ছেলে ঘুরতে দেখে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে। পরে সেখান থেকে তার এক আত্নীয় তাকে  প্রাথমিকভাবে শনাক্ত করে বাড়িতে খবর পাঠান। বাড়ির লোকজন গিয়ে তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনেন। সে অনেকটাই অপ্রকৃতিগ্রস্থ অবস্থায় রয়েছে, কোন কিছুই চিনতে পারতেছে না, কথা ও বলতে পারতেছে না।

পারিবার সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ১১ নভেম্বর সকালের দিকে সে বারইগ্রাম বাজারে যায় তারপর অার বাড়ি ফিরে অাসেনি। পরদিন এ ব্যাপারে থানায় জিডি করা হয়। অনেক খুঁজাখুজির পরও তার সন্ধান না পেয়ে পরিবার তার আশা ছেড়ে দেয়। সন্তানকে পেয়ে তার বৃদ্ধ মা ও পরিবারে অন্যান্য সদস্যরা আনন্দে আত্নহারা। তাকে এক নজর দেখতে বাড়িতে অসংখ্য আত্নীয় ও এলাকাবাসীর ভিড় লেগেই আছে। এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুবের আহমদ বলেন, এ যুবকের মানসিক সমস্যা রয়েছে। তার কথাবার্তা অসংলগ্ন। তিনি বলেন, তার সাথে কথা বলে জঙ্গী সংশ্লিষ্টতার কোন আলামত পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.