সোমবার, ২১ আগষ্ট, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
রাহেলা জকিগঞ্জের শেষ্ঠ শিক্ষিকা নির্বাচিত  » «   জকিগঞ্জে তফজ্জুল আহমদ সেবা ফাউন্ডেশনের আত্মপ্রকাশ  » «   বন্যাদুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান ক্বারী আবদুল হাফীযের  » «   এম. জাকির হুসেইন হিফযুল ক্বোরআন প্রতিযোগিতার ১ম বাঁছাই অনুষ্ঠিত  » «   জকিগঞ্জে প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি  » «   খলাছড়া ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি, শিক্ষানুরাগী মিহির বাবু আর নেই  » «   আমার বিশ্বাস এবারও নেত্রী আমাকে মনোনয়ন দেবেন, মাসুক উদ্দিন আহমদ  » «   শাবিতে জকিগঞ্জ স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশনের বরণ ও সংবর্ধনা শনিবার  » «   জকিগঞ্জ সরকারি কলেজে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের দাবী  » «   সাতচল্লিশে গণভোটে জিতেও করিমগঞ্জ হারাতে হলো যেভাবে!  » «  

বিশ্বখ্যাত ফুটবলার; মেসির ২১ মাসের কারাদণ্ড

messi_18463_1467803983

কর ফাঁকির মামলায় বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর লিওনেল মেসিকে ২১ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন স্পেনের একটি আদালত।

কর ফাঁকির তিনটি ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় বুধবার বার্সেলোনার আদালত মেসির বাবা জর্জ মেসিকেও একই পরিমাণের দণ্ড দিয়েছেন। খবর মার্কার।

এ ছাড়া আদালত কারাদণ্ডের পাশাপাশি মেসিকে ২০ লাখ ইউরো এবং তার বাবাকে ১৫ লাখ ইউরো জরিমানা করেছেন।

স্পেনে সহিংস অপরাধ না করলে দুই বছরের নিচে সাজার ক্ষেত্রে কারও কারাবাস হয় না। এরপরও আদালতের রায় আসার পর এক বিবৃতিতে মেসি স্প্যানিশ সুপ্রিমকোর্টে আপিল করার কথা জানিয়েছেন।

২০০৭ ও ২০০৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে মেসি ও তার বাবা ৪২ লাখ ইউরো কর ফাঁকি দেন বলে অভিযোগ এনেছিল স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ।

কোপা আমেরিকার আগেই এই মামলার শুনানি শেষ হয়েছিল। বুধবার মেসিকে দোষী সাব্যস্ত করে এই রায় এলো।

সরকারি আইনজীবীদের অভিযোগ, বেলিজ ও উরুগুয়েতে নিবন্ধিত কয়েকটি কোম্পানির মাধ্যমে জর্জ মেসি তার ছেলের আয়কর ফাঁকি দেন।

২০১৩ সালের আগস্টে মেসি ও মেসির বাবা ফাঁকি দেয়া কর আর এর সুদ বাবদ ৫০ লাখ ইউরো পরিশোধ করেছিলেন।

শতবর্ষী কোপা আমেরিকায় চিলির বিপক্ষে হেরে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মেসি।

আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। ক্লাব বার্সেলোনার হয়েও তিনিই সর্বোচ্চ গোলদাতা এবং পাঁচবার ফিফা ব্যালন ডি’অর জিতেছেন।

  • সর্বশেষ খবর

Jui

 

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.