সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জ সরকারি কলেজ ছাত্রদলের আনন্দ মিছিল  » «   ছেলে মৃত্যুর ৪৩দিন পর ইন্তেকাল করেন বাবা; জানাযা আড়াইটায়  » «   জকিগঞ্জে নব বিবাহীত যুবকের বিষ পানে মৃত্যু  » «   এনজিও আশা’র কর্মকর্তা আলী হোসেনের মায়ের ইন্তেকালে শোক  » «   জকিগঞ্জ-সিলেট সড়ক সংস্কারের দাবিতে জকিগঞ্জে সমাবেশ  » «   এলংজুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দোয়া মাহফিল ও পুরস্কার বিতরণ  » «   ইনামতি স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের গণ গ্রন্হাগারের উদ্বোধন  » «   শাবিপ্রবিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদেরকে জেডএসও এর অভিনন্দন  » «   জকিগঞ্জ বাজারে ভাই ভাই হিরো ক্লাবের অফিস উদ্বোধন  » «   জকিগঞ্জ পৌর এলাকায় শুক্রবার সারাদিন বিদ্যুৎ থাকবে না  » «  

নায়করাজকে শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে জনতার ঢল

কিংবদন্তি নায়ক রাজ্জাককে দেখতে মানুষের ঢল নামে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। প্রিয় নায়ককে দেখতে শহীদ মিনারে ভিড় জমায় হাজারো মানুষ। পুরুষের পাশাপাশি অনেক নারীও আসেন প্রিয় নায়ককে শ্রদ্ধা জানাতে। ঢাকা ছাড়াও ঢাকার বাইরে থেকে অনেকেই এসেছেন প্রিয় নায়ককে একনজর দেখার জন্য। সবাই হাতে ফুল দিয়ে শেষবারের মতো শ্রদ্ধা জানান নায়করাজ রাজ্জাককে।

সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে রাজ্জাকের মরদেহ আনা হয় শহীদ মিনারে। দুপুরে মরদেহ আনা হবে এমন সংবাদ জানতে পেয়ে আগে থেকেই শহীদ মিনার এলাকা লোকে-লোকারণ্য হয়ে যায়। বিভিন্ন বয়সী মানুষ তাদের প্রিয় নায়ককে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে হাতে ফুল নিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন শহীদ মিনার এলাকায়। এফডিসিতে জানাজা শেষে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মরদেহ যখন শহীদ মিনার এলাকায় প্রবেশ করে, তখন মানুষ হুমড়ি খেয়ে দৌড় দেয় মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সের দিকে। মুহূর্তের মধ্যেই শহীদ মিনার এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

পরে মরদেহ রাখা হয় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের অস্থায়ী মঞ্চে। অস্থায়ী মঞ্চে রাজ্জাকের মরদেহের সঙ্গে ছিলেন তার দুই ছেলে বাপ্পারাজ ও সম্রাট, চিত্রনায়ক শাকিব খান, সৈয়দ হাসান ইমাম, নাসির উদ্দিন ইউসুফ, গোলাম কুদ্দস প্রমুখ।

পৌনে একটার দিকে রাজ্জাকের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে শুরু করেন নানা শ্রেণিপেশার মানুষ। মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নানা শ্রেণিপেশার মানুষ। শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় ‍বিশৃঙ্খলা দেখা দিলে পুলিশ সবাইকে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়াতে অনুরোধ করেন। এতে করে সাধারণ মানুষের দীর্ঘ লাইন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রধান গেট পর্যন্ত ঠেকে যায়।

এদিকে নিরাপত্তার জন্য শহীদ মিনার এলাকায় মোতায়েন করা হয় বিপুল সংখ্যক পুলিশ।

প্রিয় নায়ককে বিদায় জানাতে কুমিল্লা থেকে ঢাকায় এসেছেন বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা আফজাল হোসেন। ঢাকাটাইমসকে তিনি জানান, ‘নায়ক রাজ্জাককে আমি অনেক শ্রদ্ধা করতাম। উনি যে আমাদের ছেড়ে এভাবে চলে যাবেন এটা আমি বিশ্বাস করতে পারছি না। আল্লাহ উনাকে জান্নাতবাসী করুক। এই দোয়াই করি।’

রাজ্জাকের মরদেহ শহীদ মিনারে দুই ঘণ্টা রাখার কথা থাকলেও রাখা হয় পৌনে এক ঘণ্টার মতো। বেলা সোয়া একটার দিকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় গুলশান আজাদ মসজিদে।

কারণ হিসেবে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পী এবায়দুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘মানুষের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে স্টেজ ভেঙে পড়ার উপক্রম হওয়ায় আমরা মরদেহ গুলশানে নিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছি। সবাই উনার জন্য দোয়া করবেন। দোয়াটাই বড়। তিনি যেন জান্নাতবাসী হোন।

বিকালে গুলশান আজাদ মসজিদে জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় দাফন করা হবে বাংলাদেশের এই কিংবদন্তি নায়ককে।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.