সোমবার, ২৪ জুলাই, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জ সর. কলেজে ছাত্রদলের স্বাগত মিছিল  » «   মুন্সীপাড়া দাখিল মাদ্রাসায় সংবর্ধনা ও মাসুক আহমদ স্মরণে মিলাদ মাহফিল  » «   ধর্মীয় সংগঠনে সম্পৃক্ত না রাখার অনুরোধ হিরঞ্জিত বিশ্বাসের  » «   পাশের সংখ্যায় শীর্ষে ইছামতি ডিগ্রী কলেজ  » «   নব-গঠিত মানিকপুর ইউপি ছাত্রদলের আনন্দ মিছিল  » «   বিভিন্ন দাবিতে জকিগঞ্জে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি  » «   জকিগঞ্জে ভোটার তালিকা হালনাগাদ আগামীকাল থেকে ; নিয়মে পরিবর্তন।  » «   জকিগঞ্জের ১৩৬টি সর. প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ  » «   লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরে মাসুক উদ্দিন আহমদকে সংবর্ধনা  » «   এইচএসসি উত্তীর্ণদের মধ্যে ছাত্রলীগ নেতার মিষ্টি বিতরণ  » «  

দূরে থেকো দূরে রেখো

Helal Mama London wtsapp 20170518_123616মো. আবদুল আউয়াল হেলাল:-
প্রযুক্তির চরম উৎকর্ষের যুগ চলছে এখন। দূরকে কাছে এনে দিচ্ছে, অজানাকে জানার সুযোগ করে দিচ্ছে আধুনিক প্রযুক্তি। ফলে সমাজে ইতিবাচক এবং নেতিবাচক প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে ব্যাপকভাবে। মানুষ আলোর সন্ধান লাভ করছে যেমন ঠিক তেমনি অন্ধকারের অতল গহ্বরে হারিয়ে যাবার পথ উন্মুক্ত হচ্ছে দিনকে দিন।
অপরাপর বিষয়ের মতো ভার্চুয়াল জগতে ব্যাপকহারে ইসলাম চর্চা নি:সন্দেহে ইতিবাচক। অশান্ত এ পৃথিবীতে সার্বিক শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইসলামের বিকল্প নেই। জীবনের সর্বক্ষেত্রে মধ্যপন্থা অবলম্বনই ইসলামের মৌলিক শিক্ষা। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, প্রযুক্তি নির্ভর প্রচারণায় ইসলামের মৌলিক সে শিক্ষা ব্যাপকভাবে উপক্ষিত হচ্ছে। বিভিন্ন প্রান্তিক মতবাদ কিংবা অভিমত ইসলামের নামে চালিয়ে দেয়া হচ্ছে ব্যাপকভাবে। শতাব্দির পর শতাব্দি ধরে চলে আসা বিভিন্ন মিমাংসিত বিষয়ে মানুষকে সন্দেহের ঘুর্ণাবর্তে ফেলে প্রান্তিকতার দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। ফলে মুসলমানের ঐক্য বিনষ্ট হচ্ছে, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ইসলাম। অভিনব যুক্তি আর চমকপ্রদ উপস্থানায় আকৃষ্ট হয়ে দেশে দেশে মুসলিম যুবসমাজ বিভ্রান্তির শিকার হচ্ছে।
এই সার্বিক বিপর্যয়ের মুখে করণীয় সম্পর্কে ভাবছিলাম গভীর ভাবে। এরই মাঝে সামনে এলো একটি হাদীস। চমকে দিলো ভাবনাকে। সেই মুবারক হাদীসখানার সূত্র ধরে এ লেখার অবতারণা। হাদীসখানা ইমাম হাকীম রাহিমাহুল্লাহ’র মুসতাদরাকসহ অন্যান্য কিতাবে আছে। কিন্তু এখানেও আছে বিপদ। প্রান্তিকতার বিষাক্ত ছোবল এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, কোন হাদীস বুখারী-মুসলিমে না থাকলে সেটিকে হাদীস হিসেবে মেনে নিতে অনেকে প্রস্তুত নয়। আশা জাগানিয়া বিষয় হলো আলোচ্য হাদীসখানা ইমাম মুসলিম রাহিমাহুল্লাহ ( ওফাত: ২৬১ হিজরী ) নিজ সহীহ মুসলিমে মুকাদ্দিমা বা ভূমিকা অংশে গ্রন্থিত করেছেন। এবার হাদীসখানা দেখে নিই।
عن ابي هُريرة رضي الله عنه عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال: سيكون في اخر امتي اناس يحدثونكم بما لم تسمعوا أنتم ولا آبَاؤُكُم فإياكم واياهم.
আবু হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে বর্ণনা করেছেন। তিনি ইরশাদ করেছেন যে, অচিরেই আমার উম্মতের মধ্য হতে আখেরি যামানায় এমনসব মানুষ আবির্ভুত হবে, তারা তোমাদের সামনে এমনসব বয়ান পেশ করবে যা তোমরা তো শুননি তোমাদের বাবারাও শুনেনি। তোমরা তাদের থেকে দূরে থেকো এবং তাদেরকেও তোমাদের থেকে দূরে রেখো।
পাঠক! বর্তমান বাস্তবতার সাথে চিরসত্যবাদী রাসূলের ফরমান মিলিয়ে দেখুন। কি চরম সত্য। প্রতিদিন প্রতি মূহুর্তে কত অভিনব বয়ান শুনছি আমরা। যা আগে কখনো শুনা যায়নি। যাদের বাবা এখনো জিবীত আছেন একটু জিজ্ঞেস করুন তো, তিনি স্বীকার করবেন তাঁর বাবাও এমন বয়ান শুনেননি ।
আসুন আমরা রাসূলের দেখানো পথে চলি। তাঁর নির্দেশনা হলো- তোমরা এই অভিনব বয়ানকারীদের থেকে দূরে থেকো এবং তাদেরকে তোমাদের থেকে দূরে রেখো।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.