শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জে বৃহত্তর খলাছড়া প্রবাসী কল্যান সংস্থার আহবায়ক কমিটির আত্মপ্রকাশ  » «   জকিগঞ্জ বিদ্যুতের অভিযোগ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ  » «   পাঠানচক প্রবাসী জনকল্যাণ সংস্থার কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠান শনিবার  » «   প্রতিবন্ধী ও দরিদ্রদের মধ্যে জকিগঞ্জ এইচটিএ সেবা ফাউন্ডেশনের চাল বিতরণ  » «   সিলেট তিব্বিয়া কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর, জকিগঞ্জের সন্তান আব্দুর রবের ইন্তেকাল  » «   দূর্ঘটনায় নিহত জকিগঞ্জের সালমান আহমদ সুমনের দাফন  » «   দরিদ্র, প্রতিবন্ধীদের নিয়ে জকিগঞ্জ এইচটিএ সেবা ফাউন্ডশনের ইফতার  » «   বারহাল ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন  » «   জকিগঞ্জে ফার্মাসিউটিকেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ এসো: কমিটি গঠন  » «   বাসের ধাক্কায় জকিগঞ্জের সুমনের মর্মান্তিক মৃত্যু  » «  

জকিগঞ্জ রাস্তার উন্নয়ণ: ফুঁড়ুত এবং দেখি না শালা কী করে

 


মো. আবদুল আউয়াল হেলাল ঃঃ সিলেট-জকিগঞ্জ রাস্তার বেহাল অবস্থার বর্ণনা নতুন করে দেবার কিছু নেই, দরকারও নেই।এ নিয়ে লেখার ইচ্ছে ছিলো না মোটেই। কী হবে লেখে, কার লেখা কে দেখে ? তবে আজ চোখে পড়লো অনলাইন নিউজ পোর্টাল জকিগনজ বার্তায় প্রকাশিত একটি গল্প ! উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সওজ’র এক কর্মকর্তা কাজ শুরুর গল্প শুনিয়েছেন সংবাদ কর্মীকে। হ্যাঁ, আমি একে গল্পই বলছি। বিগত কয়েক বছর থেকে দেশে ও বিদেশে বসে ক্ষমতাসীন দলের বড়, ছোট এবং মাঝারী গোছের বহু নেতার মুখে এই রাস্তার উন্নয়নে শতকোটি টাকা বরাদ্ধের গল্প শুনেছি অনেক।কখনো দুইশত কোটি, কখনো একশত ছিয়াশি কোটি।সাথে সরকারের বহুমূখি উন্নয়নের শত কাহিনী। উন্নয়নের রাণী প্রধান মন্ত্রী কর্তৃক কাজ শুরুর উদ্বোধনী সাইনবোর্ড বা ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন হয়েছে।যদিও দূরে থেকে ডিজিটাল সুবিধায়।

আমার লেখা মূলত: সরকার কিংবা কারো বিরুদ্ধে নয়। আমি কেবল প্রিয় জকিগঞ্জবাসিকে দু’টি গল্প স্মরণ করিয়ে দিতে চাই।ছোটবেলা পড়া চডুই’র সেই বিখ্যাত গল্প।তারপর ফুডুত।

শতকোটি টাকা বরাদ্ধ হয়েছে, তারপর ফুডুত।
কাজ উদ্বোধনের সাইনবোর্ড ঝুলেছে, তারপর ফুডুত।টিকাদার নিযুক্ত হয়েছে, তারপর ফুডুত।

এই ফুডুত’র পাল্লায় পড়ে জকিগনজবাসি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, দেখিনা শালা কী করে। গল্পের সেই গৃহস্থের কথা এতক্ষণে মনে পড়ার কথা। ঘরে সিঁদেল চোর ঢুকেছে।কর্তার ঘুম ভেঙ্গেছে ঠিকই , তবে চোর ধরার চেষ্টায় না গিয়ে বিছানায় স্ত্রীর পাশে শুয়ে আছেন। চোর একে একে দামী আসবাব পত্র সরিয়ে নিচ্ছে। কর্তা মনে মনে বলে চলেছেন দেখিনা শালা কী করে।

জকিগঞ্জ রাস্তার উন্নয়ন নিয়ে কখনো রাজনীতিজিবী (!), কখনো সরকারী কর্মকর্তা একের পর এক গল্প ফেঁদে চলেছেন, আর জকিগঞ্জবাসি ভাবছেন দেখিনা শালা কী করে।

পুনশ্চ: খুব সম্ভব বছর দুয়েক আগে আমার শ্রদ্ধেয় একজনের লেখা পড়েছিলাম ফেইসবুকে। শিরোনাম যেখানে আওয়ামীলীগ সেখানেই উন্নয়ন।
সেই লেখার সূত্রে একথা কি বলা যায়, মাশাআল্লাহ! জকিগনজ আওয়ামীলীগ মুক্ত ?

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.