শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জে বৃহত্তর খলাছড়া প্রবাসী কল্যান সংস্থার আহবায়ক কমিটির আত্মপ্রকাশ  » «   জকিগঞ্জ বিদ্যুতের অভিযোগ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ  » «   পাঠানচক প্রবাসী জনকল্যাণ সংস্থার কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠান শনিবার  » «   প্রতিবন্ধী ও দরিদ্রদের মধ্যে জকিগঞ্জ এইচটিএ সেবা ফাউন্ডেশনের চাল বিতরণ  » «   সিলেট তিব্বিয়া কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর, জকিগঞ্জের সন্তান আব্দুর রবের ইন্তেকাল  » «   দূর্ঘটনায় নিহত জকিগঞ্জের সালমান আহমদ সুমনের দাফন  » «   দরিদ্র, প্রতিবন্ধীদের নিয়ে জকিগঞ্জ এইচটিএ সেবা ফাউন্ডশনের ইফতার  » «   বারহাল ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন  » «   জকিগঞ্জে ফার্মাসিউটিকেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ এসো: কমিটি গঠন  » «   বাসের ধাক্কায় জকিগঞ্জের সুমনের মর্মান্তিক মৃত্যু  » «  

এসএসসির ফল পুন:নিরীক্ষণ করবেন যেভাবে

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে রোববার। প্রকাশিত ফলে যারা আশানুরূপ ফলাফল পায়নি; তারা চাইলে সোমবার থেকে আগামী ১৩ মে পর্যন্ত পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করতে পারবেন। পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে পুনর্নিরীক্ষণের ফল প্রকাশ করা হবে।

শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কবির আহমদ জানিয়েছেন, শুধুমাত্র টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল থেকে পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন গ্রহণ করা হবে। মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে RSC স্পেস বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস রোল স্পেস বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। প্রতিপত্রের জন্য ১২৫ টাকা চার্জ ধরা হবে।

উদাহরণ: সিলেট বোর্ডের কোনো পরীক্ষার্থীর রোল নম্বর ১২৩৪৫৬ হলে মেসেজ অপশনে RSC Syl 123456 101(বিষয় কোড) লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

ফিরতি এসএমএসে আবেদন বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর দেওয়া হবে। আবেদনে সম্মত থাকলে আবারও ম্যাসেজ অপশনে RSC স্পেস Yes পিন স্পেস কন্ট্রাক্ট নম্বর (যেকোনো অপারেটর) লিখে আবার ১৬২২২ তে পাঠাতে হবে।

একটি এসএমএস দিয়ে একাধিক বিষয়ে আবেদন করা যাবে। সেক্ষেত্রে বিষয় কোডের পর কমা (,) ব্যবহার করতে হবে। যেমন: RSC স্পেস Dha স্পেস Roll স্পেস 101,102 লিখতে হবে।

তবে যেসব বিষয়ের দু’টি পত্র (বাংলা ও ইংরেজি) রয়েছে সেসব বিষয়ে একটি বিষয় কোড বাংলার জন্য (১০১) ও ইংরেজির জন্য (১০৭) এর বিপরীতে দু’টি পত্রের জন্য আবেদন হিসাবে গণ্য হবে এবং আবেদন ফি হবে ২৫০ টাকা।

সংশোধিত ফল যথাসময়ে http://sylhetboard.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

এ বছর সিলেটে পাসের হার ৭০ দশমিক ৪২ শতাংশ। গতবার পাসের হার ছিল ৮০ দশমিক ২৬ শতাংশ। ফলে এবার কমেছে ৯ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

গতবারের তুলনায় এবার ৫৮২ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ বেশি পেয়েছে। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২ হাজার ৬৬৩ জন শিক্ষার্থী। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ১৯১ জন। এ বছর সিলেটে ১ লাখ ৮ হাজার ৯২৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেন। এদের মধ্যে পাস করেছে ৭৬ হাজার ৭১০ জন।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.