শুক্রবার, ১৮ আগষ্ট, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
আমার বিশ্বাস এবারও নেত্রী আমাকে মনোনয়ন দেবেন, মাসুক উদ্দিন আহমদ  » «   শাবিতে জকিগঞ্জ স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশনের বরণ ও সংবর্ধনা শনিবার  » «   জকিগঞ্জ সরকারি কলেজে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের দাবী  » «   সাতচল্লিশে গণভোটে জিতেও করিমগঞ্জ হারাতে হলো যেভাবে!  » «   জকিগঞ্জ সর. কলেজে ছাত্রলীগের শোক র‍্যালি ও সভা  » «   এম জাকির হুসেইন হিফজুল ক্বোরান প্রতি. প্রথম বাছাই শুক্রবার  » «   শোক দিবস উপলক্ষ্যে জকিগঞ্জ পৌর যুবলীগের আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও র‌্যালি  » «   মহানগর ছাত্রলীগের শাহিন ও আসিফের উপর শিবিরের হামলায় বারহালে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা  » «   খলাছড়া সর. প্রাইমারী স্কুল ও ইবতেদায়ী মাদ্রায় পৃথক শোক সভা ও দোয়া  » «   কাজলসার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের শোক সভা অনুষ্ঠিত  » «  

এমসি কলেজে ভাঙচুর, কলেজ অধ্যক্ষের মামলা

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাস ভাঙচুর ঘটনায় ৩৫ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

রবিবার বিকালে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় দ্রুতবিচার আইনে এ মামলা দায়ের করেন বলে জানান ওসি আক্তার হোসেন।

ওসি বলেন, মামলায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। ১০ জনের নাম উল্লেখ করে ৩৫ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে এই মামলা হয়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীকে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সৌরভ আচার্য্য, রফিজুল ইসলাম, শাওন আহমদ, নিউটন চৌধুরী, সোহাগ মিয়া ও আনোয়ার মিয়া।

গত বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগের দুই পক্ষের উত্তেজনার জেরে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসের তিনটি ব্লকের অন্তত ৫০টি কক্ষ ভাঙচুর করা হয়। ছাত্রাবাসে অধিপত্য নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরী ও হোসাইন আহমদের অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনার জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

ভাঙচুরের পর অনির্দিষ্টকালের বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে কলেজ ছাত্রাবাস। এ ঘটনা তদন্তে গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে ওসি আক্তার বলেন, ছাত্রাবাসে অতর্কিত হামলা, ভাঙচুর ও শিক্ষার্থীদের মালামাল লুটপাটের অভিযোগ আনা হয়েছে।

সকালে শিক্ষার্থীরা ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীর নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল সশস্ত্র অস্ত্রধারী ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ভাঙচুর চালায়। এতে কলেজ ছাত্রবাসের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঘটনার দিন বিকালে কলেজ কর্তৃপক্ষ শাহপরাণ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ৮ জুলাই সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রশিবিরের সংঘর্ষের পর শত বছরের ঐতিহ্যবাহী এই কলেজ ছাত্রাবাসে প্রায় অর্ধশত কক্ষ আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের একটি পক্ষকে দায়ী করে মামলা হলেও অপরাধীদের শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। (ঢাকা টাইমস)

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.