রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
বাবা-মাকে হারিয়ে আমি একা, মিয়ানমার ফেরত বালক মাহবুব  » «   জকিগঞ্জ শেওলা সড়কের পীরনগরে গাছের চারা রোপন  » «   জকিগঞ্জ এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন  » «   বারহালে সেতুবন্ধন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিষদের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত  » «   জকিগঞ্জে আল ইসলাহ-তালামীযের বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ।  » «   বৃহস্পতিবার ত্রাণ নিয়ে জকিগঞ্জ থেকে টেকনাফ যাত্রা  » «   জকিগঞ্জ-শেওলা-সিলেট সড়কে গাছ রোপন করবে সেতুবন্ধন  » «   আলোর ঝলক কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের শেষ সময় ৭অক্টোবর  » «   জকিগঞ্জ এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে অসহায় রোহিঙ্গাদেরকে সহায়তা প্রদান  » «   ঢাবি ভর্তি মেধা তালিকায় জকিগঞ্জের ফখরুল  » «  

এমসি কলেজে ভাঙচুর, কলেজ অধ্যক্ষের মামলা

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাস ভাঙচুর ঘটনায় ৩৫ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

রবিবার বিকালে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় দ্রুতবিচার আইনে এ মামলা দায়ের করেন বলে জানান ওসি আক্তার হোসেন।

ওসি বলেন, মামলায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। ১০ জনের নাম উল্লেখ করে ৩৫ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে এই মামলা হয়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীকে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সৌরভ আচার্য্য, রফিজুল ইসলাম, শাওন আহমদ, নিউটন চৌধুরী, সোহাগ মিয়া ও আনোয়ার মিয়া।

গত বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগের দুই পক্ষের উত্তেজনার জেরে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসের তিনটি ব্লকের অন্তত ৫০টি কক্ষ ভাঙচুর করা হয়। ছাত্রাবাসে অধিপত্য নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরী ও হোসাইন আহমদের অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনার জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

ভাঙচুরের পর অনির্দিষ্টকালের বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে কলেজ ছাত্রাবাস। এ ঘটনা তদন্তে গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে ওসি আক্তার বলেন, ছাত্রাবাসে অতর্কিত হামলা, ভাঙচুর ও শিক্ষার্থীদের মালামাল লুটপাটের অভিযোগ আনা হয়েছে।

সকালে শিক্ষার্থীরা ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীর নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল সশস্ত্র অস্ত্রধারী ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ভাঙচুর চালায়। এতে কলেজ ছাত্রবাসের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঘটনার দিন বিকালে কলেজ কর্তৃপক্ষ শাহপরাণ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ৮ জুলাই সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রশিবিরের সংঘর্ষের পর শত বছরের ঐতিহ্যবাহী এই কলেজ ছাত্রাবাসে প্রায় অর্ধশত কক্ষ আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের একটি পক্ষকে দায়ী করে মামলা হলেও অপরাধীদের শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। (ঢাকা টাইমস)

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.