রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
এনজিও আশা’র কর্মকর্তা আলী হোসেনের মায়ের ইন্তেকালে শোক  » «   জকিগঞ্জ-সিলেট সড়ক সংস্কারের দাবিতে জকিগঞ্জে সমাবেশ  » «   এলংজুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দোয়া মাহফিল ও পুরস্কার বিতরণ  » «   ইনামতি স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের গণ গ্রন্হাগারের উদ্বোধন  » «   শাবিপ্রবিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদেরকে জেডএসও এর অভিনন্দন  » «   জকিগঞ্জ বাজারে ভাই ভাই হিরো ক্লাবের অফিস উদ্বোধন  » «   জকিগঞ্জ পৌর এলাকায় শুক্রবার সারাদিন বিদ্যুৎ থাকবে না  » «   কারাদন্ডপ্রাপ্ত দিপুরাম; জকিগঞ্জ বার্তাকে যা বললেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  » «   জকিগঞ্জে যুবদল নেতা জুবেল আহমদের জন্মদিন পালন  » «   জকিগঞ্জে মাছ চুরির অভিযোগে দিপুরামকে কারাদন্ড; এলাকায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া  » «  

উত্তর-পূর্ব ভারতের আমীরে শরীয়ত কাঁদলেন-কাঁদালেন

19396816_1377556992335838_324952655960756113_n

উত্তর-পূর্ব ভারতের আমীরে শরীয়ত শায়খুল ইসলাম আল্লামা তৈয়ীবুর রহমান বড়ভুইয়া দামাত বারাকাতুহুম প্রায় দেড় বছর যাবত অসুস্থ।ব্রেইন স্ট্রোক হয়ে শরীরের ডান পাশ অবশ ছিল তাঁর,বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।ফলে দীর্ঘ দিন কোন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করতে পারেননি।দীর্ঘ চিকিৎসার পর সামান্য সুস্থতাবোধ করতেই এই রাহবারে ক্বওম আবারো কর্মব্যস্ত হয়ে উঠছেন।অশিতিপর বৃদ্ধ এই সমাজ সংস্কারকের এত বড় শারিরীক সমস্যার পর আবার ভক্তকুলের মাঝে ফিরে আসা এক মিরাকল বৈ কী?তাঁর চিকিৎসকরাও তাদের পেসেন্টের স্বাস্থের এরকম উন্নতিতে বিস্মিত।
আলহামদুলিল্লাহ হযরত আমীরে শরীয়ত দামাত বারাকাতুহুম বিগত ২১ মে আসামের কাছাড় জেলার কালাইন নামক স্থানে একটি ইসলাহী মাহফিলে উপস্থিত হয়ে হাজারো মানুষকে বায়আত করান। বিগত ১৬ রমজান থেকে ২০ রমজান পর্যন্ত হযরতের বাড়ী সংলগ্ন মসজিদে অনুষ্ঠিত খানকায় তিনি নিয়মিত আসরের পর দোয়া করেছেন এবং সালাতুল ইশা ও খতম তারাবীহ জামাতে আদায় করেছেন।গত ২০ রমজান থেকে হযরত আল্লামা আবদুল জলীল চৌধুরী বদরপুরী রহ.বাড়ী সংলগ্ন আলাকুলিপুর জামে মসজিদে চলছে উপমহাদেশের বৃহত্তম এ’তেকাফের জামাত।উত্তর-পূর্ব ভারত নদওয়াতুত্ তামীরের তত্ত্বাবধানে ও হযরত আমীরে শরীয়তের দিকনির্দেশনায় পরিচালিত এ খানকায় প্রথম দিনই তিতল বিশিষ্ট বিশাল মসজিদ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।২১ রমজান হযরত আমীরে শরীয়ত দামাত বারাকাতুহুম এখানে সালাতুল আসর আদায় করে বায়আত গ্রহণ করেন।এসময় লক্ষ করলাম কথা বলতে হযরতের কষ্ট হচ্ছে।তবুও তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অশ্রুসজল চোখে বলেন, ‘আপনাদের দোয়ায় আমি আজ আপনাদের মাঝে ফিরে এসেছি।আমি আপনাদের জন্য দোয়া করবো,আপনারাও আমার জন্য দোয়া করবেন।’ এসময় এ’তেকাফে অবস্থানরত সহস্রাধিক মুসল্লীদের মধ্যে ক্রন্দনের রোল পড়ে।সবাই আপন রাহবারের এ বক্তব্যে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।দীর্ঘক্ষণ অনেককে চোখ মুছতে দেখা যায়।আজ আবার একই সময় তিনি খানকায় আসেন।এখনো হুইল চেয়ার ছাড়া তিনি চলতে পারেননা। এই অল্প সময় হযরতের অবস্থান পুরো খানকায় প্রশান্তির ছায়া ফেলে।প্রায় তিন শতাধিক মুসল্লী হযরতের কাছে আজো বায়আত হন ।এত মানুষের ভীড়ে তিনি আমাকে না দেখে ছাহেবজাদা মাবরুর ভাইর কাছে বাংলাদেশের মেহমানদের কথা জিজ্ঞেস করতে ভুলেননি।তিনি ২৬ রমজান ২৪ ঘন্টার জন্য আসবেন খানকায়। সেদিন হাজার পাচেক মুসল্লীর সমাগম হবে বলে আশা করছেন নদওয়ার সেক্রেটারী জেনারেল শায়খুল হাদীস মাওলানা শায়খ ইউসুফ আলী সাহেব।আল্লাহ হযরতকে সু স্বাস্থ ও নেক হায়াত দান করুন।আমীন। লেখক: মাওলানা মুখলিছুর রহমান

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.