সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
জকিগঞ্জে মহান বিজয় দিবস উদযাপন  » «   প্রিন্সিপাল আল্লামা বালাউটি ছাহেব বাড়ির সন্নিকটে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) মাহফিল  » «   বীর মুক্তিযোদ্ধা নোমান উদ্দিনের কিছু বীরত্ত্ব গাঁথা স্মৃতি।  » «   জকিগঞ্জে বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মীদের নিয়ে সভা করলেন মাসুক উদ্দিন আহমদ  » «   নব নির্মিত জকিগঞ্জের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহান বিজয় দিবসে শ্রদ্ধা জানানো হবে  » «   মহান দিবস উপলক্ষে জকিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের ব্যাপক কর্মসূচি  » «   মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে জকিগঞ্জ বার্তার শুভেচ্ছা  » «   জকিগঞ্জে ধানের শীষ সমর্থক ফ্রন্ট গঠন  » «   জকিগঞ্জ উপজেলা অডিটোরিয়ামে আজ সন্ধ্যায় নাটক ও সংগীতানুষ্ঠান  » «   যথাযথ মর্যাদায় জকিগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ  » «  

ঈদের প্রাক্কালে বন্যা, ভূমিধসে বেহাল আসাম

ছবি :: বদরপুর-লামডিং রেল লাইনে ধস।

তাজ উদ্দিন, শিলচর (আসাম), ১৫ জুন : আগামীকাল শনিবার পবিত্র ঈদ পালন করবেন আসামবাসী। তবে এর প্রাক্কালে টানা বৃষ্টিপাতে নাকাল বরাক উপত্যকার তিন জেলা সহ আসামের এক বিরাট অংশ। রোজার শেষ দু-তিনটি দিন অনেকেই ঘরছাড়া হয়ে বিভিন্ন স্কুলের আশ্রয় শিবিরে মাথা গুঁজেছেন। অনেক এলাকা এখন পানির নিচে। বৃষ্টি থামার নামই নেই। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। এদিকে, বিভিন্ন জায়গায় ধস নামার ফলে বরাক উপত্যকার কাছাড়, করিমগঞ্জ ও হাইলাকান্দি জেলা এখন আসামের বাকি অংশ থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ডিমা হাসাও জেলায় রেললাইন উপড়ে গেছে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার পরপর দুদিন ধস নেমেছে রেলপথে। এর ফলে মিজোরাম এবং ত্রিপুরা রাজ্যও ভারতের বাকি অংশ থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। দু-একদিনের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব না হলে এখানে খাদ্যসামগ্রীর সংকট দেখা দিতে পারে।
বন্যায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে হাইলাকান্দি জেলায়। ফসলের প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উপত্যকার বরাক, কাটাখাল, লঙ্গাই, কুশিয়ারা সহ ছোট বড় সব নদীতে জল বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তে থাকা বি এস এফের কয়েকটি সীমান্ত চৌকিও জলমগ্ন হয়ে পড়েছে।

ছবি :: পাথারকান্দিতে ভেঙে গেছে বাঁধ।

শুক্রবার রমজানের শেষ জুম্মার সময় তিনদিনে প্রথমবার আকাশ অনেকটা পরিষ্কার দেখা গেছে। আর বৃষ্টি না হলে জল কমার আশা করা যেতে পারে। তবে এবারের বন্যার দুর্ভোগের ফলে ঈদের আনন্দ অনেকাংশে ম্লান হয়ে গেছে বলা যায়। শিলচরের ইটখলা ইদগাহ এখন জলের নিচে। ইটখলায় জুম্মার নামাজ পড়ানো যায়নি। প্রতি বছর ইটখলাতেই ঈদের বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

Developed by:

.