শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
দুই বছরে পা রাখছে জকিগঞ্জ টিভি  » «   আমেরিকা প্রবাসী যুবলীগ নেতা মিজান চৌধুরীর জন্মদিন উদযাপন  » «   শাহগলী আদর্শ শিশু বিদ্যানিকেতন এর ৫ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের বিদায়  » «   এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার্থীদের জন্য তারুণ্য ছাত্র ঐক্যের ফ্রি কোচিং শুরু ২১নভেম্বর  » «   জকিগঞ্জ পৌরসভা ও সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের মিছিল  » «   বিরশ্রীর বিশিষ্ট মুরব্বী হাজী আব্দুর নূরের দাফন  » «   লন্ডন প্রবাসী, মাওলানা ফখরুল ইসলাম ট্রাস্টের বৃত্তি পরীক্ষা আগামীকাল  » «   জকিগঞ্জ কানাইঘাট আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেন ইকবাল আহমদ  » «   সিলেট-৫ আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেন জাহিদুর রহমান  » «   জকিগঞ্জ কানাইঘাট আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন মামুনুর রশীদ  » «  

ঈদের প্রাক্কালে বন্যা, ভূমিধসে বেহাল আসাম

ছবি :: বদরপুর-লামডিং রেল লাইনে ধস।

তাজ উদ্দিন, শিলচর (আসাম), ১৫ জুন : আগামীকাল শনিবার পবিত্র ঈদ পালন করবেন আসামবাসী। তবে এর প্রাক্কালে টানা বৃষ্টিপাতে নাকাল বরাক উপত্যকার তিন জেলা সহ আসামের এক বিরাট অংশ। রোজার শেষ দু-তিনটি দিন অনেকেই ঘরছাড়া হয়ে বিভিন্ন স্কুলের আশ্রয় শিবিরে মাথা গুঁজেছেন। অনেক এলাকা এখন পানির নিচে। বৃষ্টি থামার নামই নেই। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। এদিকে, বিভিন্ন জায়গায় ধস নামার ফলে বরাক উপত্যকার কাছাড়, করিমগঞ্জ ও হাইলাকান্দি জেলা এখন আসামের বাকি অংশ থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ডিমা হাসাও জেলায় রেললাইন উপড়ে গেছে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার পরপর দুদিন ধস নেমেছে রেলপথে। এর ফলে মিজোরাম এবং ত্রিপুরা রাজ্যও ভারতের বাকি অংশ থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। দু-একদিনের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব না হলে এখানে খাদ্যসামগ্রীর সংকট দেখা দিতে পারে।
বন্যায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে হাইলাকান্দি জেলায়। ফসলের প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উপত্যকার বরাক, কাটাখাল, লঙ্গাই, কুশিয়ারা সহ ছোট বড় সব নদীতে জল বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তে থাকা বি এস এফের কয়েকটি সীমান্ত চৌকিও জলমগ্ন হয়ে পড়েছে।

ছবি :: পাথারকান্দিতে ভেঙে গেছে বাঁধ।

শুক্রবার রমজানের শেষ জুম্মার সময় তিনদিনে প্রথমবার আকাশ অনেকটা পরিষ্কার দেখা গেছে। আর বৃষ্টি না হলে জল কমার আশা করা যেতে পারে। তবে এবারের বন্যার দুর্ভোগের ফলে ঈদের আনন্দ অনেকাংশে ম্লান হয়ে গেছে বলা যায়। শিলচরের ইটখলা ইদগাহ এখন জলের নিচে। ইটখলায় জুম্মার নামাজ পড়ানো যায়নি। প্রতি বছর ইটখলাতেই ঈদের বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

আপনার মতামত প্রদান করুন

টি মন্তব্য

Insurance Loans Mortgage

Developed by:

.